আসসালামু আলাইকুম । কেমন আছেন সবাই? আশা করি মহান আল্লাহ্‌ তা’আলার অশেষ রহমতে ভাল আছেন? আমিও আলহামদুলিল্লাহ্‌ ভাল আছি ।

আজ আমি টুইটার বুটস্ট্রাপ সম্পর্কে আলোচনা করবো । যারা ওয়েব ডিজাইন এ কাজ করেন তাঁরা মুটামুটি সবাই বুটস্ট্রাপ এর নাম শুনেছেন এবং ব্যবহার করেছেন । যারা জানেন না তাঁদের জন্য এখন একটু সংক্ষেপে আলোচনা করছি । চলুন আমরা প্রথমে টুইটার বুটস্ট্রাপ কি জেনে নিই;

টুইটার বুটস্ট্রাপ (Twitter Bootstrap) হচ্ছে সবচেয়ে জনপ্রিয় ওপেনসোর্স ফ্রেমওয়ার্ক যেটা দিয়ে ওয়েবসাইট ডিজাইন করা হয় । এ ওপেন সোর্স ফ্রেমওয়ার্কটি প্রধানত এইচটিএমএল, সিএসএস এবং জাভাস্ক্রিপ্ট দিয়ে তৈরি করা হয়েছে । এছাড়াও, টুইটার বুটস্ট্রাপে কিছু অন্যান্য ফাইল ও রয়েছে । আমরা যখন একটি ওয়েবপেইজ ডিজাইন করি তখন সেখানে ওয়েবসাইটের প্রত্যেকটি অংশ (যেমন; হেডার, মেনু, কন্টেন্ট) আলাদা করে কোড লিখতে হয় । টুইটার বুটস্ট্রাপে এসব কোড আগে থেকেই লেখা আছে । যেমন; আপনি যদি ওয়েবসাইটের জন্য একটি মেনু তৈরি করতে চান, তাহলে আপনাকে বেশ কিছু সিএসএস লিখতে হবে । কিন্তু, টুইটার বুটস্ট্রাপ ব্যবহার করলে আপনি শুধু এইচটিএমএল ক্লাস যোগ করবেন তাহলেই আপনার ওয়েবসাইটের জন্য মেনু তৈরি হয়ে যাবে । এভাবে, আপনি অনেক অল্প সময়ে একটি ওয়েবসাইট বানাতে পারবেন । সাধারণভাবে যদি একটি ওয়েবসাইট ডিজাইন করতে আপনার ৩-৪ ঘণ্টা লাগে আপনি টুইটার বুটস্ট্রাপ এর মাধ্যমে সেই ডিজাইনটি মাত্র ১ ঘণ্টায় করতে পারবেন । এছাড়াও, টুইটার বুটস্ট্রাপ বেশ জনপ্রিয়তা লাভ করেছে । এখন সব ধরনের মার্কেট প্লেস এ দেখা যায় বলা হয়ে থাকে যে, ওয়েব ডিজাইন এ টুইটার বুটস্ট্রাপ ব্যবহার করার জন্য এবং আপনি এখন বেশীরভাগ থিমফরেস্ট এর থিমে এ বুটস্ট্রাপ ব্যবহার করা হয়ে থাকে । যাইহোক, এতক্ষণে হয়ত বুটস্ট্রাপ সম্পর্কে মুটামুটি একটা ধারনা পেয়েছেন । এবার আমি মূল আলোচনায় আসি । এখন আমরা দেখবো যে ৫ টি কারণে টুইটার বুটস্ট্রাপে ব্যবহার করবেন;

  • ওপেন সোর্স ফ্রেমওয়ার্ক
  • রেসপনসিভ ডিজাইন
  • দ্রুত ডিজাইন
  • সব ধরনের ব্রাউজার সাপোর্টেড
  • সহজে ব্যবহারযোগ্য

এখন আমি বুটস্ট্রাপ এর এসব বিষয় একটু বিস্তারিতভাবে আলোচনা করার চেষ্টা করবো;

ওপেন সোর্স ফ্রেমওয়ার্ক

টুইটার বুটস্ট্রাপ একটি ওপেন সোর্স প্রোজেক্ট । আপনি এটি আপনার পছন্দ মত ব্যবহার করতে পারেন । এই প্রোজেক্টটি সকলের জন্য উন্মুক্ত । অর্থাৎ, এখানে আপনি পাচ্ছেন পূর্ণ স্বাধীনতা । কেননা, এর মাধ্যমে সমস্ত প্রোজেক্ট আপনি আপনার পছন্দমত ব্যবহার করতে পারবেন । এটি ব্যবহার করতে আপনাকে কোন টাকা পরিশোধ করতে হবে না । অর্থাৎ, এটি সম্পূর্ণ বিনামূল্যে ব্যবহারযোগ্য ।

রেসপনসিভ ডিজাইন

রেসপনসিভ ওয়েব ডিজাইন হচ্ছে এমন একটি প্রক্রিয়া যা ওয়েবসাইটের কন্টেন্টগুলোকে অপটিমাইজ করে সব ধরণের ডিভাইসে ব্যবহারের উপযোগী করা যায় । অর্থাৎ, ওয়েবসাইটটি মোবাইল, ট্যাবলেট, ডেক্সটপ অর্থাৎ সব ধরনের ডিভাইস এ সাপোর্ট করে । আগে মোবাইল এবং ডেস্কটপ এর জন্য আলাদা আলাদা ওয়েব সাইট ডিজাইন করা হতো । কিন্তু, এখন রেসপনসিভ ওয়েব ডিজাইনের মাধ্যমে এ কাজটি খুব সহজেই করা যায় । বর্তমানে, রেসপনসিভ ওয়েব ডিজাইনের ব্যাপক চাহিদা রয়েছে । রেসপনসিভ ওয়েব ডিজাইন বিভিন্ন ফ্রেমওয়ার্ক এর দ্বারা করা হয় । আর রেসপনসিভ ওয়েব ডিজাইন এর সবচেয়ে ভাল ফ্রেমওয়ার্ক হচ্ছে টুইটার বুটস্ট্রাপ । এছাড়াও আপনি এটি ব্যবহার করে ফিক্সড লে-আউট ওয়েবসাইট ডিজাইন করতে পারেন ।

দ্রুত ডিজাইন

টুইটার বুটস্ট্রাপ ব্যবহার করে আপনি যেকোনো ওয়েবসাইট দ্রুত ডিজাইন করে ফেলতে পারেন । এর মাধ্যমে যেই টেম্পলেট ১ ঘণ্টায় ডিজাইন করতে পারবেন, সেই টেম্পলেট এ বুটস্ট্রাপ ব্যবহার না করলে প্রায় ৩-৪ ঘণ্টা সময় লাগবে । একটা কথা ভেবে দেখুন, আমরা যখন ওয়েবসাইটের জন্য মেনু তৈরি করি তখন মেনু তৈরি করার জন্য আমাদের বেশকিছু সিএসএস কোড লিখতে হয় । আর টুইটার বুটস্ট্রাপ ব্যবহার করলে আপনি শুধু একটি এইচটিএমএল ক্লাস যোগ করলেই মেনু তৈরি হয়ে যাবে! সুতরাং, এটি ব্যবহারের মাধ্যমে আপনি দ্রুত ওয়েবসাইট ডিজাইন করে সময় বাঁচাতে পারেন ।

সব ধরনের ব্রাউজার সাপোর্টেড

আমরা যখন একটা ওয়েবসাইট ডিজাইন করি তখন আমরা প্রায়-ই একটা জিনিশ মাথায় রেখে কাজ করতে হয় । সেটা হচ্ছে ওয়েবসাইটটি সব ধরনের ব্রাউজারে সাপোর্ট করবে কি না? এজন্য আমরা বিভিন্ন ধরনের টুল ব্যবহার করে থাকি । আপনি যদি বুটস্ট্রাপ ব্যবহার করেন তাহলে ওয়েবসাইটটি সব ধরনের ব্রাউজারে সাপোর্ট করবে কি না, এ ধরনের কোন চিন্তা-ই আপনাকে করতে হবে না । কেননা, এটি দ্বারা তৈরি ওয়েবসাইট ডিজাইন করলে তা সব ধরনের ব্রাউজার এ সমর্থন করে ।

সহজে ব্যবহারযোগ্য

টুইটার বুটস্ট্রাপ ব্যবহার করা তেমন কোন কঠিন কাজ নয় । এটি শেখার জন্য ইন্টারনেট এখন প্রচুর রিসোর্স রয়েছে । এর সোর্স কোড সমূহ দক্ষ ডেভেলপার দ্বারা অত্যন্ত নিখুঁতভাবে লেখা হয়েছে । এছাড়া, টুইটার বুটস্ট্রাপ এর ওয়েবসাইট এ টুইটার বুটস্ট্রাপ ব্যবহার করার পূর্ণাঙ্গ রিসোর্স দেওয়া হয়েছে । ফলে আপনি সহজেই টুইটার বুটস্ট্রাপ ব্যবহার করতে পারেন ।

এছাড়াও, টুইটার বুটস্ট্রাপ ব্যবহার করার আরও অনেক সুবিধা রয়েছে । আমি এখানে শুধু কয়েকটি সুবিধার কথা আলোচনা করেছি । ইন্টারনেট এ এটি শেখার প্রচুর রিসোর্স রয়েছে । এসব রিসোর্স থেকে সহজেই এটি শিখতে পারবেন । আশা করি টিউটোরিয়ালটি আপনাদের কাজে লাগবে ।

ধন্যবাদ সবাইকে আমার টিউটোরিয়ালটি মনোযোগ দিয়ে পড়ার জন্য । ভাল থাকেবন সবাই । আল্লাহ্‌ হাফেজ ।